লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের সুবিধা এবার থেকে কারা পাবেন ? নির্দেশিকা জারি করলো রাজ্য সরকার

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 1.6 কোটি যোগ্য পরিবারের মহিলাদের লক্ষ্মীর ভাণ্ডার যোজনা প্রকল্পে প্রতি মাসে জেনারেল ক্যাটাগরি পরিবারের মহিলাদের 500 টাকা (বার্ষিক 6000 টাকা) এবং তফসিলি জাতি ও উপজাতি পরিবারের মহিলাদের 1000 টাকা (বার্ষিক 12,000 টাকা) প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন এবং সেই মতো বাস্তবায়ন ও হয়েছে ৷ এই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পে তোমরা কারা কারা আবেদন করতে পারবে, কিভাবে আবেদন করতে পারবে কিকি শর্তাবলী রাখা হয়েছে এবং আবেদনপত্র বা ফর্ম তোমরা কোথা থেকে ডাউনলোড করতে পারবে বা সংগ্রহ করতে পারবে এবং এই প্রকল্পে কারা কারা টাকা পাবে? সমস্তকছু নিচে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো।

Lakshmir Bhandar যোজনা আসলে কি ?

2021 বিধানসভা ভোটের আগে তৃণমূল কংগ্রেসের ইস্তেহারে এই প্রকল্পে কথা ঘোষণা করেছিলেন ৷ পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী তথা মমতা ব্যানার্জী বলেছিলেন মহিলাদের উদ্দেশ্যে 500 ও 1000 টাকা করে প্রতিমাসে হাত খরচের জন্য দেওয়া হবে। এবং এই প্রকল্পের নাম দিয়েছিলেন Lakshmir Bhandar যোজনা প্রকল্প ।

 

Lakshmir Bhandar যোজনায় কারা টাকা পাবেন ?

2021 বিধানসভা ভোটের ইস্তাহার অনুযায়ী ঘোষনা করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের 1.6 কোটি যোগ্য পরিবারের মহিলাদের Lakshmir Bhandar যোজনা প্রকল্পে প্রতি মাসে জেনারেল ক্যাটাগরি পরিবারের মহিলাদের 500 টাকা (বার্ষিক 6000 টাকা) এবং তফসিলি জাতি ও উপজাতি পরিবারের মহিলাদের 1000 টাকা (বার্ষিক 12,000 টাকা) করে দেওয়া হবে।

 

Lakshmir Bhandar যোজনার টাকা কবে থেকে দেওয়া হবে ?

বিধান সভায় পাশ হয়ে গিয়েছে Lakshmir Bhandar যোজনা ৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জীর ঘোষনা অনুযায়ী সেই প্রকল্পের বাস্তবায়ন ও হয়েছে ৷ 

Lakshmir Bhandar যোজনার টাকা কিভাবে দেওয়া হবে ?

পশ্চিমবঙ্গের 1.6 কোটি যোগ্য মহিলাদের পরিবারের একজন মহিলাই এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন ৷ এবং সেই মহিলার ব্যাংকে একাউন্ট থাকতে হবে উপরে এই প্রকল্পের টাকা সরাসরি আবেদনকারীর ব্যাংক একাউন্টে পাঠানো হবে ।

Lakshmir Bhandar যোজনা প্রকল্পে কিভাবে আবেদন করবে ?

শিশু সুরক্ষা ও পরিবার কল্যাণ দফতরের দারি করা নির্দেশিকাতে জানানো হয়েছে যে যাঁরা ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের জন্য নাম নথিভুক্ত করিয়েছেন সেই সব মহিলারা লক্ষীর ভাণ্ডারের সুবিধা পাবেন। তবে যদি আবেদনকারীর স্বাস্থ্যসাথী বা আধার কার্ড না থাকে তাঁকে প্রথমে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করার সুযোগ দেওয়া হবে। এর জন্যে সেই মহিলার বয়স ২৫ থেকে ৬০ এর মধ্যে হতে হবে। যাঁরা পেনশনভোগী, তাঁরা লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের সুবিধা পাবেন না বলেই জানানো হয়েছে। যোগ্য মহিলা ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা জমা পড়বে। এক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার লিঙ্ক থাকতে হবে।

Lakshmir Bhandar যোজনা আবেদন পত্র ফরম কোথায় পাওয়া যাবে ?

আবেদন পত্র নীচে দিয়ে দেউয়া হল তবে এই ফরম ফিলাপের জন্য তোমাদের নিকটবর্তী দুয়ারে সরকার ক্যাম্প বা বিডিও অফিস বা মিউনিসিপালিটি অফিসে কিংবা পঞ্চায়েতে তোমরা পেতে পারো । 

Lakshmir Bhandar যোজনায় আবেদন করার জন্য কি কি নথিপত্র বা ডকুমেন্টস লাগবে ?

এই মূহুর্তে কিছু জানানো হয়নি তবে মনে করা হচ্ছে আবেদনকারীর

১) কালার পাসপোর্ট সাইজ ছবি।

২) সাস্থসাথী কার্ড। 

৩) আধার কার্ডের জেরক্স। 

৪) কাস্ট সার্টিফিকেট SC/ST (যদি থাকে)

৫) ব্যাংক পাসবুকের জেরক্স / ক্যানসেল চেক

 

আবেদন পত্র ডাউনলোড করুন :- Click Here

 

আমাদের জেনে রাখতে হবে এই প্রকল্প হয়তো প্রতিবছর আবেদন করা যাবে না একবার নাম নথিভুক্ত করলে আর আবেদন করতে হবে না প্রতি মাসে মাসে তখন একাউন্টে টাকা আসা শুরু হয়ে যাবে তবে পরবর্তী এই নিয়ে কোনো রকম তথ্য পাওয়া গেলে আমাদের ওয়েবসাইটে সমস্ত তথ্য যাচাই করে প্রকাশ করা হবে ৷

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top